Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
You are here
Home > Who knows our future (আমাদের ভবিষ্যৎ) > What’s your Zodiac Signs (আপনি কোন রাশির জাতক?)

What’s your Zodiac Signs (আপনি কোন রাশির জাতক?)

হিন্দু ও মুসলিম রীতিতে রাশি নির্ণয় প্রণালীঃ

আমাদের সমাজের প্রায় ৮৫% মানুষ জীবনের কোন না কোন সময় রাশি চক্রের বিষয় জানতে আগ্রহ দেখায়, সুযোগ পেলে নিজের রাশি মিলিয়ে নেয়। নিজের রাশি জানতে এখানে ওখানে খোজা খুজি করে, নিজের ভবিষ্যৎ সর্ম্পক্যে জানতে ইচ্ছে পোষন করে। আমরা আজ আপনাদের রাশি নির্নয়ের জন্য কয়েকটি পদ্ধতী সেই সাথে জন্ম সংখ্যা, নাম সংখ্যা সেগুলোর মধ্যে শুভ সংখ্যা অসুভ সংখ্যা সর্ম্পক্যে সাম্ম্যক আলোকপাত করবো। বাংলা নামের বানান বা বাংলা নামের অদ্যাক্ষর অনুযায়ী রাশি নির্ণয়ঃ আপনাকে প্রথমত নিচের ছকটির দিকে খেয়াল করতে হবে

অক্ষর অনুযায়ী রাশি নির্নয় অক্ষর অনুযায়ী রাশি নির্নয়
বাংলা অক্ষর অধিপত্য রাশি বাংলা অক্ষর অধিপত্য রাশি
অ, ল মেশ রাশি র, ত তুলা রাশি
ই, উ, ব বৃষ রাশি ন, জ বৃশ্চিক রাশি
ক, ছ মিথুন রাশি ফ, ঢ, ধ, ভ ধনু রাশি
ড, হ কর্কট রাশি খ, ম মকর রাশি
ম, ঠ সিংহ রাশি গ, শ, স কুম্ভ রাশি
ট, প, থ কন্যা রাশি ব, চ, ক্ষ মীন রাশি

 

সাধারন ভাবে উপরের ছক থেকে রাশি নির্নয়ের প্রচলন আমাদের অনেকের মধ্যেই বিদ্যমান আবার নিচের ছক থেকে আবজাদ হিসাব করেও রাশি নির্নয় করা হয়ে থাকে।

বাংলা অক্ষরের আবজাদ সংখ্যা
২১ ১২ ২৩ ২৪ ২৫
৩১ ৩২ ৩৩ ৩৪ ৩৫
৪১ ৪২ ৪৩ ৪৪ ৪৫
৫১ ৫২ ৫৩ ৫৪ ৫৫
৬১ ৬২ ৬৩ ৬৪ ৬৫
ক্ষ
৭১ ৭২ ৭৩ ৭৪ ৭৫
২৫ ৩৫ ২৫ ৩৫ ৭৩

এই তালিকা হতে রাশি ফল বের করতে হলে যে নিয়মে বের করতে হবে তা হচ্ছে- প্রথমত একটি নামের প্রথমে ও শেষে যে সকল অলঙ্করন রয়েছে তা বাদ দিয়ে শুধু মূল নামটিকেই নিতে হবে, এবার যার রাশি বের করতে হবে তার নামের মূল ও তার মায়ের নামের মূল অংশটি নিয়ে সেই নামের প্রতিটি অক্ষরের আবজাদ সংখ্যা নিয়ে যোগ করতে হবে। যেমন ধরুন একজনের নাম মোঃ আব্দুল সিহাব জনি এ ক্ষেত্রে তার মূল নাম সুধু সিহাব নিতে হবে তার মায়ের নাম মোছাঃ আফসানা নাফসি নূর এখানে আফসানা নামটিকে নিতে হবে। এবার তাহলে কি দ্বারালো সিহাব নামের আবজাদ হবে স+হ+ব অর্থাৎ ৭৩+৭৪+৬৩ = ২১০, তার মায়ের নামের আবজাদ অ+ফ+স+ন অর্থাৎ ২৫+৬২+৭৩+৫৫= ২১৫

এবার দুই নামের মোট আবজাদ মান হচ্ছে ২১০+২১৫ = ৪২৫ এবার এই ৪২৫ কে ১২ দিয়ে ভাগ করতে হবে, এবং ১২ দিয়ে ভাগ করলে ভাগ শেষে অবশিষ্ট থাকবে ৫, এবার নিচের ছক থেকে তার রাশি নির্ণয় করতে হবে।

১ অবশিষ্ট থাকলে…………….. মেষ রাশি

২ অবশিষ্ট থাকলে…………….. বৃষ রাশি

৩ অবশিষ্ট থাকলে…………….. মিথুন রাশি

৪ অবশিষ্ট থাকলে…………….. কর্কট রাশি

৫ অবশিষ্ট থাকলে…………….. সিংহ রাশি

৬ অবশিষ্ট থাকলে…………….. কন্যা রাশি

৭ অবশিষ্ট থাকলে…………….. তুলা রাশি

৮ অবশিষ্ট থাকলে…………….. বৃশ্চিক রাশি

৯ অবশিষ্ট থাকলে…………….. ধনু রাশি

১০ অবশিষ্ট থাকলে…………….. মকর রাশি

১১ অবশিষ্ট থাকলে…………….. কুম্ভ রাশি

১২,০ অবশিষ্ট থাকলে…………….. মীন রাশি

যেহেতু উপরের নামের আবজাদ হিসেব করে তার অবশিষ্ট ৫ বিধায় তার রাশি হচ্ছে সিংহ রাশি।

উপরক্ত নিয়মগুলো সাধারনত ইসলামী শাস্ত্রে পাওয়া যায়, হিন্দু শাস্ত্রে নাম দিয়ে রাশি বের করতে হলে নিচের ছক অনুসরন করতে হবে।

ক্রঃ নং রশি রাশির অক্ষর
মেষ চু, চে, চো, লা, লী, লু, লে, লো, অ
বৃষ ই, উ, এ, ও, বা, বী, বু, বে, বো
মিথুন কা, কী, কু, ঘ, জ, ছ, কে, কো, হা
কর্কট হী, হু, হে, হো, ডা, ডী, ডু, ডে, ডো
সিংহ মা, মী, মু, মে, মো, টা, টী, টু, টে
কন্যা হো, পা, পী, পু, ষ, ণ, ঠ, পে, পো
তুলা রা, রী, রু, রে, রো, তা, তী, তূ, তে
বৃশ্চিক তো, না, নী, নূ, নে, নো, য়া, য়ী, য়ু
ধনু য়ে, য়ো, ভো, ভী, ভু, ধা, ফা, ঢ়া, ভ
১০ মকর জা, জে, জী, খী, খু, খে, খো, গা, গী
১১ কুম্ভ গু, গে, গো, সা, সী, সু, সে, সো, দা
১২ মীন দো, দু, থ, ঝ, ঞ, দে, দা, চা, চী

বহুল প্রচলিত আর একটি সর্বজনিন নিয়ম রয়েছ রাশি বের করার যা জন্ম তারিখের উপর নির্ভর করে, নিচের ছকে দেখুন।

জন্ম তারিখের স্বরনী
জন্ম তিথি সুর্যের রাশি অধিপতি গ্রহ
১৫ এ্যপ্রিল হতে ১৪’ই মে মেষ মঙ্গল
১৫ মে হতে ১৪’ই জুন বৃষ শুক্র
১৫ জুন হতে ১৪’ই জুলাই মিথুন বুধ
১৫ জুলাই হতে ১৪’ই আগষ্ট কর্কট চন্দ্র
১৫ আগষ্ট হতে ১৪’ই সেপ্টেম্বর সিংহ সূর্য
১৫ সেপ্টেম্বর হতে ১৪’ই অক্টোবর কন্যা বুধ
১৫ অক্টোবর হতে ১৪’ই নভেম্বর তুলা শুক্র
১৫ নভেম্বর হতে ১৪’ই ডিসেম্বর বৃশ্চিক মঙ্গল
১৫ ডিসেম্বর হতে ১৪’ই জানুয়ারী ধনু বৃহষ্পতি
১৫ জানুয়ারী হতে ১৪’ই ফেব্রুয়ারী মকর শনি
১৫ ফেব্রুয়ারী হতে ১৪’ই মার্চ কুম্ভ শনি
১৫ মার্চ হতে ১৪’ই এ্যপ্রিল মীন বৃহষ্পতি

আমরা এভাবে নিজের পছন্দমত যে কোন ভাবেই নিজের রাশি বের করতে পারি। তবে এখানে একটি বিষয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ যে আমরা যে ভাবেই নিজের রাশি বের করি না কেন আসলে আমাদের জন্ম রাশী বের করতে অবশ্যই আমাদের জন্ম তারিখে জন্ম লগ্নের সময় যে গ্রহের অবস্থান সেটির উপর নির্ভর করেই আমাদের রাশি বের হয়, আর সেটাই মুল রাশি। অর্থাৎ আমাদের যে সময় জন্ম হয়েছিলো সে সময়ের বাংলা দিন পঞ্চিকা জোগার করতে পারলেই কেবল আমাদের যাদের জন্ম রাশি জানা নেই তাদের রাশি বের করা সম্ভব। বর্তমান সময়ে অবশ্য কিছু কিছু এ্যষ্ট্রোলজিক গণ নিউমারলোজি ব্যবহার করে নাম ও জন্ম তারিখের শুভাশুভ লক্ষণ দেখে সম্ভব্য জন্ম রাশি বের করে দেয়। আবার কিছু ভারতীয় প্রবিন এ্যষ্ট্রোলজার গণ জন্ম তারিখ ও সময় জেনে সঠিক জন্ম রাশি বলতে পারেন। যাই হোক আমরা পরবর্তীতে নিউমারলোজি সংখ্যার উপর বিস্তারিত আলোচনা করবো, আজ তাহলে এ পর্যন্তই।

Top